Girl in a jacket

ময়মনসিংহে খাদ্যে ভেজাল, জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে হাট-বাজার মনিটরিং : ৫০হাজার টাকা জরিমানা

0

জহিরুল কাদের কবীরঃ
ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে ময়মনসিংহের মানুষকে সুস্থ্য রাখতে খাদ্যের ভেজাল নিয়ন্ত্রণে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে হাট-বাজারে ব্যাপক মনিটরিং এর ব্যবস্থা করেছেন জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান।  তাই আসন্ন ঈদুল আজহায় করোনাকালীন সংকটে মহামারী নিয়ে ব্যস্ততার আড়ালে বিভিন্ন খাদ্য সামগ্রী উৎপন্নকারী প্রতিষ্ঠান যাতে ভেজাল ও নিম্নমানের খাদ্যপণ্য দিয়ে  জনমানুষের স্বাস্থ্যঝুকি আরও প্রকট করতে না পারে সেদিকে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে কঠোর নজরদারী অব্যাহত রয়েছে। সেই লক্ষে ময়মনসিংহ জেলা প্রশাসনের নির্দেশনায় নিয়মিত বিরতিতে ভ্রাম্যমান কোর্ট পরিচালনা করছেন জেলার বিভিন্ন উপজেলার উপজেলা  নির্বাহী অফিসার,সহকারী কমিশনার ভূমি (এসিল্যান্ড),বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গণ। তারই ধারাবাহিকতায় জেলা প্রশাসনের বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সেগুফতা মেহনাজ এর নেতৃত্বে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এ।

২৮শে জুলাই মঙ্গলবার নগরীর  কাচারী ঘাট এলাকায় মোমিন ফুডস নামক একটি খাদ্য সামগ্রী উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানে ভেজাল বিরোধী অভিযান পরিচালনা করে ৫০০০০/(পঞ্চাশ হাজার মাত্র)টাকা অর্থদন্ড প্রদান করে ভ্রাম্যমান আদালত।   একই দিনে নগরীর বিভিন্ন সেমাই, ফুচকা উৎপাদন, বড়ই আচার ও তেতুল আচার প্রস্তুতকারী কারখানায় অভিযান পরিচালিত হয়। এসময় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর আওতায় অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাদ্যসামগ্রী তৈরির অপরাধে কাচারী ঘাট এলাকায় মোমিন ফুডসে ৫০০০০/(পঞ্চাশ হাজার মাত্র)টাকা অর্থদন্ড প্রদান করেন বিজ্ঞ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সেগুফতা মেহনাজ। অভিযানে তার সাথে র‍্যাব এর সহকারী পুলিশ সুপার তাসলিম হোসাইন এবং স্যানিটারি ইন্সপেক্টর জাবেদ ইকবাল এর সহযোগিতায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনায় সহযোগিতা করেন। জেলা প্রশাসক মিজানুর রহমান জানান- করোনার সংকটকালীন সময়ে ঈদকে সামনে রেখে অসাধু ব্যবসায়িরা যাতে মুনাফার লোভে খাদ্যপণ্যের মান নষ্ট করতে না পারে সে বিষয়ে সার্বিক নজরদারি আরও বাড়ানোর লক্ষে আমাদের এই ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান  নিয়মিত পরিচালিত হবে। জনস্বার্থে এই অভিযান চলবে, তিনি অভিযান সফল করতে সকলের নিকট সার্বিক সহযোগিতা প্রত্যাশা করেন।

Share.

Comments are closed.