Girl in a jacket

ভূয়া নন-এমপিও শিক্ষক সেজে এক গ্রামীণ ব্যাংক ম্যানেজারের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া অনুদানের টাকা উত্তোলনের অভিযোগ

0

ময়মনসিংহ জেলা প্রতিবেদকঃ-

অনিয়মই যেখানে নিয়ম। শিক্ষাবান্ধব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ নন-এমপিও শিক্ষক/কর্মচারীদের সহায়তার করতে শিক্ষকদেরকে পাঁচ হাজার টাকা ও কর্মচারীদেরকে আড়াইহাজার টাকা করে অনুদান প্রদান করেছেন। যা এক অনন্য দৃষ্টান্ত। কিন্ত সেই টাকা যদি শিক্ষক পরিচয়ে ব্যাংক ম্যানেজার, এমপিওভুক্ত শিক্ষক ও গৃহিণীরা পায়। তাহলে আর কি দুঃখজনক ঘটনা হতে পারে। এমনি একটি চাঞ্চল্যকর তথ্য পাওয়া গেছে ময়মনসিংহের তারাকান্দা উপজেলায়। কলেজটি নাম এইচ. এ. ডিজিটাল কলেজ। কলেজের প্রিন্সিপাল এস.কে হোসনে আরা শিশির বলেন অনুদানের তালিকায় ৩২ জনের নাম রয়েছে। এসব শিক্ষক/কর্মচারীর মধ্যে তার স্বামী গ্রামীণ ব্যাংক তারাকান্দা শাখার ম্যানেজার মহিউদ্দিন আহমেদ আল ফারুক কলেজের প্রভাষক হিসেবে অনুদানের পাঁচ হাজার টাকার চেক গ্রহণ করেছেন বলে তিনি স্বীকার করেছেন।

এ ঘটনায় সাংবাদিকগণ খোঁজ খবর নিতে থাকলে ভয়ে অবশেষে ভুয়া শিক্ষকরূপী গ্রামীণ ব্যাংকের ম্যানেজার মহিউদ্দিন আহমেদ আল ফারুকী, জনতা ব্যাংক তারাকান্দা শাখার হিসাব নং ০১০০০৫৭৮১৬৭৬১ এর চেকনং ৪১৩৮৮৩০ তারিখ ০৯/০৭/২০২০ মোট পাঁচ হাজার টাকার চেকটি ফেরত দিয়েছেন বলে তারাকান্দা উপজেলা নির্বাহী অফিসের অফিস সহকারি গতকাল দুপুরে নিশ্চিত করেছেন।

এ ব্যাপারে কলেজের প্রিন্সিপাল এসকে হোসনে আরা শিশির বলেন, তার স্বামী ফারুককে খন্ডকালীন প্রভাষক হিসেবে অনুদানের তালিকায় নাম অর্ন্তভুক্ত করা হয়েছে। এটা ভুল হয়ে গেছে। ভবিষ্যতে এটা আর করব না। এদিকে তার স্বামী গ্রামীণ ব্যাংকের ম্যানেজার মহিউদ্দিন আহমেদ আল ফারুক বলেন, এটা ভুল হয়ে গেছে। কলেজের প্রিন্সিপাল আমার স্ত্রী চেকটি নিয়ে এসেছে। চেক এখনো ক্যাশ করেনি। চেকটি ফেরত দিয়ে দিব। এ ব্যাপারে গ্রামীণ ব্যাংকের জোনাল ম্যানেজার জীবন বলেন, হয়ত তার স্ত্রী লাভবান হওয়ার উদ্দেশ্যে এই কাজটি করেছেন। বিষয়টি আমরা খতিয়ে দেখব। অনুদানের তালিকায় ব্যানবেইসের তালিকার বাহিরে একাধিক শিক্ষকের নাম রয়েছে। আরো এধরনের শিক্ষক/ কর্মচারীদের নাম আছে বলে ধারণা করছেন স্থানীয়রা। এ ব্যাপারে নিরপেক্ষ তদন্ত প্রয়োজন।

তারাকান্দা উপজেলায় এমপিওভুক্ত আরো দুইজন শিক্ষক ও একজন কর্মচারী নাম অনুদানের তালিকায় রয়েছে। এ ব্যাপারে তারাকান্দা উপজেলা মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অফিসার আবু বক্কর সিদ্দিক এর সত্যতা স্বীকার করে বলেন, এমপিওভুক্ত ৩জন শিক্ষক/কর্মচারী অনুদানের তালিকায় নাম রয়েছে। তাদেরকে অনুদানের চেক দেয়া হবেনা। চেকের টাকা ফেরত দেয়া হবে। অনুদানের তালিকায় ব্যাংক ম্যানেজারের নাম রয়েছে। তা কি আপনি জানেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমার জানা নেই। অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Share.

Comments are closed.