Girl in a jacket

ভালুকায় যৌতুকের দাবিতে গৃহবধূকে নির্যাতণের অভিযোগ

0

স্টাফ রিপোর্টার, দিগন্তবার্তা:-

ময়মনসিংহের ভালুকায় ঝুমা আক্তার (২৫) নামে এক সন্তানের গৃহবধূকে যৌতুকের দাবিতে স্বামীর বাড়ির লোকজন মারধর করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাটি ১৯ নভেম্বর বৃহস্পতিবার বিকেলে উপজেলার আউলিয়ারচালা গ্রামে।
থানায় দেয়া অভিযোগে জানা যায়, উপজেলার আউলিয়ারচালা গ্রামের সানোয়ার হোসেনের ছেলে জহিরুল ইসলামের সাথে ২০১৬ সালে উপজেলার মিরকা গ্রামের শাহাব উদ্দিনের মেয়ে ঝুমা আক্তারের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকেই তিন লাখ টাকা যৌতুকের দাবিতে স্বামীর বাড়ির লোকজন ঝুমার উপর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতণ চলে আসছিলো। সুখের জন্য ঝুমা তার বাবার কাছ থেকে কয়েক দফায় দুই লাখ টাকা নিয়ে দেয় এবং তাদের ঘরে জায়েদ মিয়া নামে একটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয়। গত তিন বছর আগে ঝুমার স্বামী জহিরুল ইসলাম বিদেশে চলে গেলে স্বামীর বাড়ির লোকজন আরো যৌতুকের জন্য তার উপর নির্যাতণ শুরু হয় এবং এক পর্যায়ে ঝুমা নির্যাতণ সইতে না পেরে বাবার বাড়ি চলে যায়। গত ১৯ নভেম্বর ঝুমা তার শিশু ছেলে জায়েদ ও বোন শিমলা আক্তার সুমিকে নিয়ে স্বামীর বাড়ি গেলে স্বামীর বাড়ির লোকজন তাকে তিন লাখ টাকা নিয়ে না আসলে তাকে বাড়িতে উঠতে দিবেনা বলে চলে যেতে বলে। এ সময় ঝুমা প্রতিবাদ করলে তাকে বেধরক মারপিট করে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেয়া হয়। নিরুপায় হয়ে আমি জীবন রক্ষাতে শিশু সন্তান ও ছোট বোনকে নিয়ে বাবার বাড়িতে চলে আসি। পরে আমার বাবার বাড়ির লোকজন চিকিৎসার জন্য ভালুকা ৫০ শয্যা সরকারী হাসপাতালে ভর্তি করেন।
এ ব্যাপারে ঝুমা আক্তার বাদি হয়ে তার শ্বশুর সানোয়ার হোসেন, সাহারা খাতুন, তাহমিনা আক্তার ও লিপি আক্তারকে আসামী করে ভালুকা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন।
ভালুকা মডেল থানার ওসি মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় মামলা রুজু হয়েছে এবং আসামী গ্রেফতারে চেষ্টা চলছে।

Share.

Comments are closed.