Girl in a jacket

ভালুকায় বাড়ির সীমানা প্রাচীর নির্মাণে ঘুষ দাবী করায় ২বন প্রহরিকে গণ ধোলাই

0

স্টাফ রিপোর্টার, দিগন্তবার্তা, ১ মে:-
ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলাার ধামশুর মৌজার ১২৫৮নং দাগে সৈয়দ নাজমুল হক বাড়ির সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করার সময় হবিরবাড়ি বিট অফিসের ২বন প্রহরি রুবেল ও মকবুল হোসেন ৫০হাজার টাকা ঘুষ চাইলে এলাকার নারী পুরুষ সম্মেলিত ভাবে ঝাটা, লাঠি সোঠা নিয়ে হামলা করে। খবর পেয়ে ভালুকা মডেল থানা পুলিশ ও বনের লোকজন গিয়ে তাদেরকে উদ্ধার করে। ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার আখালিয়া এলাকায় শনিবার বেলা ১১টায়। এ ঘটনায় উভয় পক্ষ থানায় অভিযোগ দিয়েছেন।
স্থানীয়রা জানায় সৈয়দ নাজমুল হক আখালিয়া এলাকায় ১২৫৮নং দাগে ১একর ৫শতাংশ জমি ক্রয় করে শনিবার সকালে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ শুরু করে হঠাৎ করে বন প্রহরি রুবেল ও মকবুল হোসেন গিয়ে নাজমুল হকের কেয়ারটেকার বাবুল মিয়ার কাছে ৫০হাজার টাকা ঘুষ দাবী করেন। প্রতি উত্তরে বাবুল বন বিভাগের লোকজনকে জানায় এজমি সিএস,আরওআর এর জমি বর্তমান বিআরএস পর্যন্ত আমাদের নামে চূড়ান্ত হয়েছে। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে দুই বন প্রহরি বাবুলে উপর হামলা করে। স্থানীয় লোকজন খবর পেয়ে নারী পুরুষ ঝাড়– লাঠি সোঠা নিয়ে বনের লোকজনের উপর হামলা করে। এ সময় রুবেল ও মাকবুল দৌড়ে পালায়। খবর পেয়ে ভালুকা রেঞ্জ কর্মকর্তা মোজাম্মেল হোসেন ভালুকা মডেল থানা পুলিশসহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলে ওই দুই প্রহরি আত্নগোপন থেকে বের হয়ে আসে। ঘটনার পর বাবুল,বন প্রহরি রুবেল ও মকবুল হোসেন ভালুকা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছে।
স্থানীয় বাসিন্দা রহিমা খাতুন জানান,আমার বনের লোকজনের অত্যাচারে অতিষ্ট।আমরা যদি একটি পানির খাওয়ার জন্য টিউবওয়েল স্থাপন করলেও বনের বন প্রহরি রুবেলগংদেরকে টাকা দিতে হয়।
বাবুল জানান,এ জমিতে বনের কোনো দাবী নেই তার পরও রুবেল ও মকবুল এসে আমার কাছে ৫০হাজার টাকা ঘুষ দাবী করে। সেই টাকা দিতে অস্বীকার করলে তারা দুজনে আমার উপর হামলা করে আমাকে আহত করে।
ভালুকা মডেল থানার এস,আই বিল্লাল হোসেন জানান,সীমানা প্রাচীর নির্মাণ কাজ বন্ধ করা হয়েছে। জমির মালিক দেরকে তাদের কাগজ পত্র নিয়ে থানায় আসতে বলা হয়েছে।
ভালুকা রেঞ্জ কর্মকর্তা মোজাম্মেল হোসেন জানান, স্থানীয় লোকজন আমার দুই স্টাফের উপর হামলা করে আহত করেছে। তারা বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। জমির মালিকদেরকে তাদের কাগজপত্র নিয়ে অফিসে আসতে বলেছি।

Share.

Comments are closed.