Girl in a jacket

ভালুকায় বনবিভাগের জমি দখল করে নির্মাণ হচ্ছে একের পর এক বসতবাড়ি

0

ময়মনসিংহের ভালুকায় বনবিভাগের জমি দখলে নিয়ে একের পর এক বসতঘর নির্মানের নির্মাণে অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় বনবিভাগের অসাধূ ব্যক্তিদের মোটা অঙ্কের টাকা দিয়ে এসব বসতবাড়ি নির্মাণ করা হচ্ছে বলে জানা গেছে। ঘটনাটি উপজেলার হাজিরবাজার এলাকায়।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, হাজিরবাজার এলাকার জালাল উদ্দিনের ছেলে আনোয়ার হোসেন ধামশুর মৌজার ১০৪৬ নম্বর দাগে ১৭ শতাংশ বনবিভাগের জমি দখলে নিয়ে চারপাশে তীরপাল টানিয়ে বেড়া দিয়ে পাকা বসতবাড়ি নির্মাণ করছেন। তাছাড়া একই দাগে আব্দুর রশিদের ছেলে নজরুল ইসলামও একই কায়দায় ১৪ শতাংশ জমি দখলে নিয়ে টিনসেট বাড়ি নির্মাণ করছেন।
অভিযোগ রয়েছে, বনবিভাগের হাজিরবাজার ক্যাম্পে সম্প্রতি মোস্তাফিজ নামে এক ব্যক্তি ইনচার্জ হিসেবে যোগদান করার পর থেকে একের পর এক বসতবাড়ি নির্মাণ শুরু হয়েছে। আর তাকে সহযোগীতা করছেন ওই ক্যাম্পের পুরাতন মকবুল ও রুবেলসহ কতিপয় অসাধূ ব্যক্তি। অবৈধ দখরকারীরা তাদের মোটা অঙ্কের টাকা দিয়েই এসব বসতবাড়ি নির্মাণ করা হচ্ছে। তাছাড়া একই এলাকায় আরো বেশ কয়েকটি স্থাপনার নির্মাণকাজ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে বলে জানা গেছে এবং ওইসব স্থাপনার ব্যাপারে বনবিভাগের সাথে ফয়সালা না হওয়ায় কাজ শুরু করতে পারছেন না বলে অভিযোগ করছেন স্থানীয়রা।


বনবিভাগের জমি দখলে নিয়ে বাড়ি নির্মাণকারী অভিযুক্ত আনোয়ারের সাথে কথা বলতে না পারায়, তার মন্তব্য দেয়া সম্ভব হয়নি।
হাজিরবাজার ক্যাম্পে সম্প্রতি যোগদানকারী ইনচার্জ মোস্তাফিজ বাড়ি নির্মানের কথা স্বীকার করে বলেন, বনবিভাগের জমি দখল করে বাড়ি নির্মাণকারী আনোয়ারের বিরুদ্ধে বন আইনে মামলার প্রস্তুতি চলছে। আনোয়ার আমার আগের ইনচার্জ কামরুল হকের সময়ে ঘর নির্মাণ শুরু করেছিলো। তাছাড়া নজরুল নামে এক ব্যক্তির বাড়ি নির্মাণের বিষয়টি তার জানা নেই বলে জানান।

Share.

Comments are closed.