Girl in a jacket

ভালুকায় প্রজেক্ট বিল্ডার্সের অর্ধকোটি টাকা মূল্যের মেশিন নেয়ার সময় ক্র্যানসহ ড্রাইভার আটক

0

স্টাফ রিপোর্টার, দিগন্তবার্তা,২২ জানুয়ারী:-

ময়মনসিংহের ভালুকায় নৈশ প্রহরিকে অস্ত্র ঠেকিয়ে প্রজেক্ট বিল্ডার্স লিমিটেড (পিবিএল) এর ৫০ লাখ টাকা মূল্যের প্যালোডার মেশিন জোরপূর্বক লো-ভেডকাম ক্র্যানে করে নিয়ে যাওয়ার সময় স্থানীয় গ্রামবাসী রাস্তা ব্যারিকেড করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে মোটরসাইকেল ও লো-ভেডকাম ক্র্যানসহ ড্রাইভারকে আটক করে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার ভোররাতে উপজেলার মামারিশপুর গ্রামে। এ ঘটনায় ভালুকা মডেল থানায় দু’জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ১০/১৫জনকে আসামী করে একটি মামলা দায়ের করেছেন।
থানায় দেয়া অভিযোগে জানা যায়, ময়মনসিংহ-জয়বেদপুর ফোরলেন সড়কের ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান প্রজেক্ট বিল্ডার্স লিমিটেড (পিবিএল) ফোরলেন সড়কে নির্মাণ কাজের শেষের দিকে তাদের কার্যাদেশ বাতিল করে দেয়া হয়। কার্যাদেশ বাতিল হয়ে যাওয়ার পর কয়েক কোটি টাকা মূল্যের মেশিনারিজ, ট্রাক, পিকআপ, মাইক্রোবাসসহ মূল্যবান মালামাল মহাসড়কের পাশে মামারিশপূর এলাকায় স্টেক ইয়ার্ডে রেখে যায়। ঘটনার রাতে উপজেলার কাঠালী গ্রামের মৃত আবুল হোসেন মিলনের ছেলে অস্ত্র মামলায় সাজা খেটে আসা ফয়েজ আহম্মেদ খান মিশু (৩৫) ১০/১৫জন লোকসহ লো-ভেডকাম ক্র্যান নিয়ে পিবিএল এর স্টেক ইয়ার্ড অফিসের নৈশ প্রহরীকে অস্ত্র ঠেকিয়ে প্যালোডার মেশিন লো-ভেডকাম ক্র্যানে তুলার চেষ্টা চালায়। এসময় স্থানীয় লোকজন খোঁজ পেয়ে রাস্তায় কাঠের গুঁড়ি ফেলে ব্যারিকেড দেয়। তখন মিশু অস্ত্র উচিয়ে ভয় দেখালে ক্ষুব্ধ এলাকাবাসী ইট পাটকেল নিক্ষেপ করলে লো-ভেডকাম ক্র্যান নিয়ে বিকল্প রাস্তায় যাওয়ার সময় রাস্তায় মামারিশপুর এলাকায় হারুনের হ্যাচারির সামনে লো-ভেডকাম ক্র্যানটি মাটির রাস্তায় আটকে যায়। এসময় গ্রামবাসীর সহযোগীতায় একটি মোটরসাইকেল ও লো-ভেডকাম ক্র্যানসহ ড্রাইভার শফিকুল ইসলামকে (৩০) আটক করে। এ ঘটনায় প্রজেক্ট বির্ল্ডার্স লিমিটেডের (পিবিএল) লিয়াজো অফিসার সৈয়দ আহাসান আহাম্মদ বাদি হয়ে ভালুকা মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।
স্থানীয় প্রত্যক্ষদশর্ীরা

জানান, ঘটনার সময় মিশু ট্রাক, মোটরসাইকেল যোগে ১০/১৫জন লোক নিয়ে পিবিএল কোম্পানির সাইড অফিসের ভিতরে ঢুকে ক্র্যাং মেশিন দিয়ে প্যালোডার মেশিন ট্রাকে তুলার সময় আমরা রাস্তায় কাঠের গুঁড়ি ফেলে দিয়ে আমরা বাঁধা দিলে মিশু আমাদের দিকে অস্ত্র উচিয়ে ভয় দেখালে আমরা ইট পাটকেল নিক্ষেপ করলে সে বিকল্প রাস্তা দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় ট্রাক ও মোটরসাইকেল ফেলে পালিয়ে যায়।
অটককৃত ড্রাইভার শফিকুল ইসলাম জানান, ঘটনার রাতে মিশু আমাকে ফোন করে বলে লো-ভেডকাম ক্র্যানটি কাঠালী এলাকায় নিয়ে আসার জন্য। আমি ক্র্যানটি নিয়ে আসলে আমাকে অস্ত্র ঠেকিয়ে ক্রেনের ভিতরে আটকিয়ে রেখে তার ট্রাকের ড্রাইভার দিয়ে মেশিনটি তুলে।
ভালুকা মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ মাইন উদ্দিন জানান, এ ঘটনায় একটি মামলা হয়েছে এবং মালামাল জব্দ করা হয়েছে। ড্রাইভারকে আটক করা হয়েছে। অপরাপর আসামীদের ধরার চেষ্টা চলছে।

Share.

Comments are closed.