Girl in a jacket

ভালুকায় কানিজ ফাতেমা হত্যা মামলার আরো এক আসামী গ্রেফতার

0

স্টাফ রিপোর্টার, দিগন্তবার্তা:-

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার মামারিশপুর গ্রামের ওমর ফারুকের মেয়ে কানিজ ফাতেমা হত্যা মামলার আরো এক আসামীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি ভালুকা পৌর সভার কাঠাঁলী গ্রামের সোলায়মান শেকের ছেলে রাকিব হোসেন (২৪)। ২৬ নভেম্বর বৃহষ্পতিবার রাতে ভালুকা হাইস্কুলমোড় এলাকা থেকে থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে ভালুকা মডেল থানা পুলিশ। ১০ দিনের রিমান্ড আবেদনে ২৭ নভেম্বর শুক্রবার তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এনিয়ে, ওই মামলার ৪ আসামীকে গ্রেফতার করলো থানা পুলিশ।
থানা সূত্রে জানা যায়, স্থানীয়দের সংবাদের ভিত্তিতে ভালুকা মডেল থানা পুলিশ গত ১৪ জুন ভালুকার খীরু নদীর পানিতে ভাসমান অবস্থা থেকে হাত-পা বাধা অজ্ঞাত এক তরুনীর অর্ধগলিত লাশ উদ্ধার করে। পরে, ওই ঘটনায় ভালুকা মডেল থানা পুলিশ বাদি হয়ে একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। এদিকে, লাশ উদ্ধারের পর খবর পেয়ে উপজেলার মামারিশপুর গ্রামের ওমর ফারুক থানায় এসে উদ্ধারকৃত লাশটি তার মেয়ে কানিজ ফাতেমার বলে সনাক্ত করেন। অপরদিকে, হত্যা মামলা দায়েরের পরপরই থানা পুলিশ তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে ওই ঘটনায় জড়িত থাকা সন্দেহে গত ১৭ জুন ভালুকা পৌর সভার কাঠালী গ্রামের মো. মনির হোসেন (২৩) ও মো. জামাল হোসেনকে (২৫) আটক করে। পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটককৃতরা জানায়, গত ৩ জুন রাত আটটার দিকে ভালুকা বাজার হতে বাড়ি ফেরার পথে বিভিন্ন প্রলোভনে কানিজ ফাতেমাকে তারা ভালুকা পৌর সভার ২ নম্বর ওয়ার্ড খীরু নদী সংলগ্ন জনৈক আজিজুল হকের বাগানে নিয়ে যায় এবং তারা দুইজনসহ আরোও আরও ২-৩ জন মিলে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে। ওই সময় মেয়েটির ডাক-চিৎকার শুরু করলে তারা তাকে হত্যা করে এবং হাত-পা বেঁধে লাশ খীরু নদীতে ফেলে দেয়। পুলিশ আসামীদের নিকট থেকে কানিজ ফাতেমার ব্যবহৃত মোবাইলের সিম কার্ডটি উদ্ধার করে। পরবর্তীতে, ১৯ জুন গ্রেপ্তার করা হয় উজ্জল মোল্লা (২৫) নামে ওই মামলার আরেক আসামীকে।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ভালুকা মডেল থানার এসআই রঞ্জন জানান, কানিজ ফতেমাকে ধর্ষণ ও হত্যা মামলায় গ্রেপ্তারকৃত আসামী রাকিব হোসেনকে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদনে আদালতে পাঠানো হয়েছে। এর আগে ওই মামলার আরো তিন আসামীকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

Share.

Comments are closed.