Girl in a jacket

ভালুকার সোনাখালী-পাঁচগাঁও রাস্তাটির করুণ অবস্থা

0

স্টাফ রির্পোটার, দিগন্তবার্তাঃ-

ময়মনসিংহের ভালুকা উপজেলার ডাকাতিয়া সোনাখালি চৌরাস্তা থেকে পাঁচগাঁও সানরাইজ উচ্চ বিদ্যালয় পযর্ন্ত প্রায় আড়াই কিলোমিটার রাস্তাটি তিন গ্রামের মানুষের চলাচলে চরমদুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিশেষ করে এই বর্ষায় স্কুল কলেজের শিক্ষার্থী ও শতশত কারখানার শ্রমিকসহ এলাকাবাসি হাটু পরিমাণ কাঁদা মারিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে।ইউনিয়নের ও রাস্তায় চলাচলরত স্থানীয় ভূক্তভোগীরা জানান, এই রাস্তাটি তিন গ্রামের মানুষের চলাচলে চরম দুর্ভোগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। স্থাণীয় চেয়ারম্যান ও জনপ্রতিনিধিদের কাছে দীঘর্দিনের দাবি ছিলো রাস্তাটি কমপক্ষে ইটের সলিং করে দেয়ার জন্য। কিন্তু আাদৌ রাস্তাটির প্রতি কারো নজর আসেনি।এলাকাবিাসি জানান, সোনাখালি, কাতলামারি ও পাঁচগাও গ্রাম তিনটি সবজিসহ বিভিন্ন কৃষি উৎপাদনকারী এলাকা। কিন্তু পরিবহণ করতে না পারায় অনেক সময় দেখা যায়, ক্ষেতেই ফসল নষ্ট হয়েছে বাজারে নিতে না পারায়। শুকনা মৌসুমে সিএনজি ও ব্যাটারী চালিত অটোরিক্সা চলাচল করলেও বর্ষায় এই রাস্তাটিতে হাটু পরিমাণ কাঁদা লেগে থাকে। তাছাড়া এই এলাকায় একটি কলেজ, দুটি হাইস্কুল,তিনটি প্রাইমারি স্কুল, দুটি মাদ্রাসা, ছয়টি মসজিদ, বেশ কয়েকটি বাজারের, ব্যবসায়ী, ছাত্র-ছাত্রী প্রতিদিনই যাতায়ত করে থাকেন। চলতি বর্ষায় রাস্তাটির বেহাল অবস্থাযর কারণে এলাকাবাসীর চলাচল প্রায় বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়েছে। রাস্তাটির বেহালদশাই এলাকার হাটবাজারসহ থমকে গেছে সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রা যাতায়ত ব্যবস্থা। মাটির রাস্তা থাকার কারণে স্থানীয় কিছু মৎস্য চাষী ট্রাক্টর দিয়ে বৃষ্টিতে ভেজা রাস্তায় মাছের খাদ্য নেয়ার কারণে রাস্তার করুন হাল হয়ে পড়েছে। উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, স্থানীয় ইউপি সদস্য নির্বাচনের পূর্বে প্রতিশ্রুতি দিয়ে ছিল রাস্তাটি পাকা করে দেয়ার জন্য। নির্বাচনে জয়লাভ করার পর রাস্তারটি কোনো পরিবর্তন হয়নি। এলাকাবাসি সুনজর দেয়ার জন্য স্থানীয় সংসদ সদস্য আলহাজ্ব কাজিম উদ্দিন আহমেদ ধনু ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

Share.

Comments are closed.