Girl in a jacket

না ফেরার দেশে চলে গেলেন অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দীন আহমদ

0

না ফেরার দেশে চলে গেলেন বিশিষ্ট রাষ্ট্রবিজ্ঞানী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এমাজউদ্দীন আহমদ। ১৭ জুলাই শুক্রবার ভোরে ধানমণ্ডির ল্যাবএইড হাসপাতালে তিনি ইন্তেকাল করেন। ইন্নালিল্লাহি ওয়াইন্নাইলাইহি রাজিউন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৮৮ বছর। ড. এমাজউদ্দীন আহমদ ১৯৩৩ সালের ১৫ ডিসেম্বর ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মালদায় জন্মগ্রহণ করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান, ঢাবির উপ-উপাচার্য এবং ১৯৯২ থেকে ১৯৯৬ সাল পর্যন্ত তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি সরাসরি বিএনপির কোনো পদে ছিলেন না। বিএনপির শুভাকাঙ্ক্ষী ছিলেন। বিএনপিপন্থী বুদ্ধিজীবীদের নিয়ে গঠিত শত নাগরিক কমিটির সভাপতির দায়িত্বও পালন করেন তিনি। এছাড়া, তিনি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় ‘ইউনিভার্সিটি অব ডেভেলপমেন্ট অল্টারনেটিভ’র (ইউডা) ভিসি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। মৃত্যুকালে স্ত্রী সেলিমা আহমদ, চার সন্তান ও নাতি-নাতনিসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে যান এমাজউদ্দীন। শিক্ষাক্ষেত্রে অনবদ্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক ১৯৯২ সালে একুশে পদক লাভ করেন অধ্যাপক এমাজউদ্দীন। এ ছাড়া মাইকেল মধুসূদন দত্ত গোল্ড মডেল, শেরে বাংলা স্মৃতি স্বর্ণপদক, ঢাকা সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক স্বর্ণপদক, বাংলাদেশ যুব ফ্রন্ট গোল্ড মেডেল, মহাকাল কৃষ্টি চিন্তা সংঘ স্বর্ণপদক, জাতীয় সাহিত্য সংসদ স্বর্ণপদক, জিয়া সাংস্কৃতিক স্বর্ণপদক, রাজশাহী বিভাগীয় উন্নয়ন ফোরাম স্বর্ণপদকসহ জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ের বহু পুরস্কার-সম্মাননা অর্জন করেন তিনি।

Share.

Comments are closed.