Girl in a jacket

গফরগাঁওয়ে স্কুলছাত্রী অপহরণের পর ধর্ষণ ও অপর এক কিশোরীকে ধর্ষণের পর অন্তসত্বা ঘটনায় গ্রেফতার ২

0

গফরগাঁও প্রতিনিধি
ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে বখুরা বিহারী মোড় এলাকা থেকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে সপ্তম শ্রেনী (১৩) ছাত্রীকে অপহরণ করে গাজীপুরে চারদিন আটকে রেখে ধর্ষণ করে লিমন নামে এক লম্পট যুবক। অপর ঘটনায় উপজেলার চারিপাড়া গ্রামে সাদেক হাসান নামে এক লম্পটের হাতে ১৪ বছর বয়সী এক কিশোরী ধর্ষিত হয়েছে । ওই কিশোরী ৪ মাসের অন্তঃসত্ত¡া। থানা পুলিশ দুই ধর্ষককে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠিয়েছেন।
থানায় দায়ের করা মামলা ও ভুক্তভোগীদের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গফরগাঁও উপজেলার বখুরা দাখিলা মাদ্রাদার সপ্তম শ্রেনীর ছাত্রীকে মাদ্রাসায় আসা-যাওয়ার পথে প্রেম নিবেদন করতো ও উক্তক্ত্য করতো বখুরা গ্রামের লিমন (২০) নামের বখাটে যুবক। গত বৃহস্পতিবার দুপুরে পাশর্^বর্তী আঠারদানা গ্রামে নানাবাড়ি বেড়াতে যাওয়ার সময় বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই মাদ্রাসাছাত্রীকে অপহরন করে গাজীপুর নিয়ে একটি বাসায় চারদিন আটকে রেখে জোরপূর্বক ধর্ষন করে বখাটে লিমন। গত রবিবার সকালে ওই কিশোরীকে উপজেলার বিহারী মোড় এলাকায় একটি বাড়িতে এনে রাখে লিমন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে থানা পুলিশ গত রবিবার দুপুরে ওই বাড়িতে অভিযান চালিয়ে কিশোরীকে উদ্ধার করে এবং ধর্ষক লিমনকে গ্রেফতার করে গফরগাঁও থানা পুলিশ।
অপরদিকে উপজেলার বারবাড়িয়া ইউনিয়নের চারিপাড়া গ্রামে লম্পট সাদেক হাসানের (২৪) হাতে ধর্ষিত হয় এক কিশোরী (১৪)। স্থানীয় প্রভাবশালী লোকজন এই ঘটনা ধামাচাপা দিতে বেশ কয়েক বার সালিশ দরবার কর্ ে। এদিকে ধর্ষিত কিশোরী ৪ মাসের অন্তঃসত্ত¡া হয়ে পড়ে। প্রভাবশালী মহলের চাপে ধর্ষিতার পরিবার থানায় মামলা করতে সাহস পায়নি। সারাদেশে ধর্ষন বিরোধী আন্দোলনে সাহস পেয়ে ধর্ষিতার পরিবার গফরগাঁও থানায় মামলা দায়ের করে । থানা পুলিশ ধর্ষক সাদেক হাসানকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যম ময়মনসিংহ জেল হাজতে পাঠিয়েছে।
গফরগাঁও থানার ওসি অনুকুল সরকার বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পরপরই মামলা এফআইআর করে আসামীদ্বয়কে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

Share.

Comments are closed.